July 16, 2024
a group of people wearing face masks - bangadarpan.com

image collected from internet

শেয়ার করুন

রাজ্যের প্রাথমিক শিক্ষকদের জন্য দুঃসংবাদ। এবার ফেরত দিতে হতে পারে ৩ থেকে ৪ লক্ষের মতো টাকা। ইতিমধ্যে কর্মরত প্রাথমিক শিক্ষকদের মধ্যে কাদের ক্যাটাগরি ‘A’, তাদের বিষয়ে তথ্য জানতে বিকাশভবনের দ্বারস্থ হচ্ছে খোদ বিভিন্ন জেলার ডিপিএসসির সচিবরা।

এদের মধ্যে অনেকেই আবার বিদ্যালয় অবর পরিদর্শকদের নির্দেশ দিয়েছেন প্রাথমিক শিক্ষক-শিক্ষিকাদের সার্ভিস বুক রিকাস্ট করার জন্য। এই রাজ্যে প্রাথমিক শিক্ষকরা ১৮ বছর চাকরি করলে একটাই পদোন্নতি পান।

২০০৬ সালের প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের নিয়ম মেনে নিয়োগ পাওয়া শিক্ষকদের বড়ো অংশই মাধ্যমিক পাশ এবং এক বছরের PTTI ট্রেনিং নিয়ে চাকরিতে প্রবেশ করেছিলেন। সেইসময় তাঁদেরকে A  ক্যাটাগরির শিক্ষক হিসেবে চিহ্নিত করা হয়।

পরবর্তীকালে চালু হয় ২ বছরের D.El.Ed কোর্স। তখন এক বছরের প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত শিক্ষকরা একবছরের ব্রিজ কোর্স করে নিজেরদের প্রশিক্ষণের ডিগ্রি আপ-টু-ডেট করেছিলেন। এতদিন পর তাঁরা যদি A ক্যাটাগরির শিক্ষক হিসেবে মান্যতা না পান, তাহলে তাঁদের সার্ভিস বুক রিকাস্ট করতে হবে।

এতে রাজ্যের প্রায় ২৬০০০ কর্মরত প্রাথমিকে কর্মরত শিক্ষক-শিক্ষিকাদের ৩ থেকে ৪ লক্ষ করে টাকা ফেরত দিতে হবে। এ নিয়ে শিক্ষক মহলে রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। এতে করে তাঁদের বেতন কাঠামোয় প্রভাব পড়তে পারে।

বিষয়টিতে আইনি জটিলতাও রয়েছে। অনেকেই আদালতের দারস্থ হওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। স্কুল শিক্ষা দপ্তর সূত্রে খবর, আইন শাখার পরামর্শ নিয়ে, নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েই ক্যাটাগরিভিত্তিক বিভাজনের কাজ শুরু হয়েছে। এখন দেখার, শিক্ষক-শিক্ষিকাদের মধ্যে এর কতটা প্রভাব পড়ে। বিস্তারিত তথ্যের জন্য চোখ রাখুন এই ওয়েবসাইটগুলিতে- https://www.wbbprimary.org, https://www.wbbpeonline.com, https://www.banglarshiksha.gov.in

শেয়ার করুন

1 thought on “রাজ্যের ২৬ হাজার প্রাথমিক শিক্ষক-শিক্ষিকাদের বেতন ফেরতের নির্দেশ সরকারের!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *